করোনা থেকে বাচানোর ক্ষমতা আল্লাহ্‌র নেইঃ তসলিমা নাসরিন

আল্লাহ-কে সর্বশক্তিমান বলে মনে করেন ইস’লাম ধ’র্মের অনুসারীরা। যাব’তীয় সব সমস্যার সমাধান থাকে পবিত্র ধ’র্মগ্রন্থ কোরানে এমনটাই সকল মু’সলিমের ধারনা। মৃ’’ত মানুষও বেঁচে উঠতে পারেন যদি আল্লাহ সহায় থাকেন তারা দাবি করেন বলেন বাংলাদেশের নির্বাসিত এই লেখিকা নাস্তিক তসলিমা নাসরিন।তিনি

আরও বলেন মু’সলিম’দের এই মনোভাব নিয়ে বিতর্ক কিছু কম নেই। যা নিয়ে কটাক্ষ করেন নাস্তিকেরা।বাংলাদেশের নির্বাসিত এই লেখিকা তসলিমা নাসরিন, ইস’লাম নিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিরূপ মন্তব্য করে থাকেন

। তার সেই ধা’রা বজায় রেখেই বাংলাদেশের নির্বাসিত এই লেখিকা তসলিমা নাসরিন ফের কটাক্ষ করেছেন ইস’লামের অনুসারীদের।

এবারের তার কটাক্ষের বি’ষয় করো’না ভাই’রাস নিয়ে। তিনি বলেন,বর্তমানে বিশ্ব জুড়ে ছড়াচ্ছে করো’না ভাই’রাস। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এই রোগের প্রকো’প ে আ’ক্রান্তের সংখ্যাও।পৃথিবীর এই প্রতিকূলতার

মাঝেও ঈশ্বর বা ঈশ্বরদের কাছ থেকে কোনও সুরাহা মিলছে না। পৃথিবীর অনেক জায়গায় ই বর্তমানে বন্ধ রাখা হয়েছে ম’সজিদ। নমাজের জন্যেও খোলা হচ্ছে না উপাসনাস্থল গু’লো। এবারে তসলিমা নাসরিন মুলত কটাক্ষ করেছেন এট নিয়েই।

রবিবার দুপুরের দিকে বাংলাদেশের নির্বাসিত এই লেখিকা নাস্তিক তসলিমা নাসরিন টুইট করে লিখেছেন, “নামাজের ডাক বা আজানের নিয়মের ক্ষেত্রে বদল আনা হয়েছে মু’সলিম’দের। সমবেত জমায়েত হয়ে প্রার্থনা বা নমাজের জন্য আর উপাসকদের নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে না।” সেই স”ঙ্গে তিনি আরও বলেছেন, “এখন ম’সজিদ থেকে বলা হচ্ছে নিজেদের ঘরে বসেই প্রার্থনা করুন।”

তসলিমা লিখেছেন, “মু’সলিম সম্প্রদায়ের মানুষেরা খুব ভালো করেই জানেন যে করো’না ভাই’রাস থেকে মানুষকে বাঁ’চানোর ক্ষমতা আল্লাহ-র নেই।বিশ্ব জুড়ে করো’না আত’ঙ্কের মাঝে সাবধানতা অবলম্বন করা শুরু

হয়ে গিয়েছে ধ’র্মীয় স্থানগু’’লিতেও। শনিবার দুপুরের দিকে টুইট করে তিনি লেখেন, “কোনও ঈশ্বর আমা’দের সাহায্য করতে আসবে না। “আল্লাহর ঘর হচ্ছে কাবা, তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ম’সজিদ্গু’’লিও বন্ধ। প্রার্থণার ঘরগু’’লিতেও আর ভিড় হচ্ছে না।

করো’না ভাই’রাসের অবসান ঘটাতে যদি কেউ সাহায্য করে তবে তা বিজ্ঞানীরা করবে বলে তিনি জানান। আম’রা এখন ভ্যাকসিনের জন্য অ’পেক্ষা করছি।টুইটের শেষ লাইনে তিনি লিখেছেন, “নাস্তিক হওয়ার জন্য

এটাই আদর্শ সময়।ধ’র্ম এবং সংশ্লিষ্ট বি’ষয়ের স”ঙ্গে বাংলাদেশের নির্বাসিত এই লেখিকা তসলিমা নাসরিনের বিরোধ নতুন কিছু নয়। যার কারণেই তিনি তার জীবনে বারবার আ’ক্রমণ সম্মুখীন হয়েছেন। বাংলাদেশ

থেকেও তাকে বিতারিত করা হয়েছিল এই ধ’র্মীয় বিদ্বেষের কারণেই। ঠাঁই মেলেনি কলকাতার মাটিতেও। অনেক জটিলতা পার করে এখন তিনি সুইডেনের নাগরিক।

তার এই বিরূপ মন্তব্বের জন্য ইস’লাম ধ’র্মীরা তাকে নিয়ে কড়া সমালচনা করছেন।তাকে কোনভাবেই বাংলাদেশের মাটিতে পা রাখতে দেওয়া যাবেনা বলে হুশিয়ারি দেন ইস’লাম ধ’র্মীরা।

সুত্রঃ নজরবন্দি , কলকাতা

রংপু’রের ব’দরগঞ্জ নিজের মেয়েকে ধ’র্ষ’ণে’র অ’ভি’যোগ উ’ঠেছে। ধর্ষ’ণে’র শি’কা’র মেয়ের অ’ভি’যো’গে পু’লিশ স্টার বাবুল নামে ওই পা’ষ’ন্ড বাবাকে গ্রে’প্তা’র করেছে।

ন্যা’ক্কা’র’জনক এ ঘট’নাটি ঘ’টেছে উপজেলার বি’ষ্ণুপুর ইউনিয়নের ও’স’মা’নপুরে। গত ১২ ফেব্রুয়ারি বুধবার সকালে স্বা’স্থ্য প’রীক্ষার জন্য মে’য়েটিকে উ’দ্ধা’র করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাস’পাতালে পাঠানো হয়।

পু’লিশ সূত্রে জানা যায়, স্টার বাবুলের বাড়ি রংপুর মহা’নগরের আলমনগর এলা’কায়, তার বাবার নাম হাসান আলী। গত পাঁচ বছর আগে তিনি বদরগঞ্জ উপজে’লার বি’ষ্ণুপুর ইউনিয়নে শ্ব’শু’ড়বাড়িতে স্থা’য়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। সংসা’রে তার নিজের দুইটি মেয়ে রয়েছে। স্ত্রী বাড়ির পাশে ই’টভা’টায় শ্রমিকের কাজ করেন। ছোট মেয়ে স্কুলে যায়। বাড়ি ফাঁ’কা হয়ে গেলে স্টার বাবুল তার আ’টারো-উনিশ বছরের বড় মেয়েকে কয়েকবার জো’র’পূ’র্বক ধ’র্ষ’ণ করেন বলে অ’ভি’যো’গ উঠেছে।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার রাতে আবারো ধ’র্ষ’ণে’র ঘ’টনা ঘ’টলে মেয়েটি গো’প’নে পু’লিশে খ’বর দেয়। পরে ব’দরগঞ্জ থা’না পু’লিশ অ’ভি’যা’ন চা’লিয়ে বা’বুলকে আ’ট’ক করে। এ ঘ’টনায় বা’দি হয়ে মেয়েটি তার পি’তার বি’রুদ্ধে থা’নায় ‘ধ’র্ষ’ণ মা’মলা দিয়েছেন।

বদরগঞ্জ থা’নার ও’সি হাবিবুর রহমান হাওলাদার বলেন, বাবুল একজন মা’দ’ক’সেবী ও বি’ক্রেতা। তার বি’রুদ্ধে নানা অ’নৈতিক কাজে জ’ড়ি’ত থাকার অ’ভি’যোগ পাওয়া গেছে। ভু’ক্ত’ভো’গী মেয়ের অ’ভি’যো’গের প্রে’ক্ষি’তে বা’বাকে গ্রে’প্তা’র” করে জে’ল’হা’জ’তে পা’ঠানো হয়েছে।

Related posts

Leave a Comment