দুই ঘণ্টার বেশি বাতাসে ভেসে থাকতে পারে করোনা: গবেষণা

করোনা ভাইরাস বাতাসে দুই ঘণ্টার বেশি সময় ধরে ভেসে থাকতে পারে বলে জার্নাল

ন্যাচারে প্রকাশিত একটি নতুন গবেষণায় জানানো হয়েছে।

এর আগেও বাতাসে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর বিষয়টি ল্যাব পরীক্ষার মাধ্যমে জানা

গেলেও এবার চীনের উহানের দুটি হাসপাতালে এ নিয়ে পরীক্ষা চালানো হয়েছে। তবে

এটি এখনো নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না যে বাতাসের মাধ্যমে ছড়ানো ভাইরাস থেকে

সংক্রমণ হতে পারে কি না। তবে গবেষণায় বলা হচ্ছে, রোগীর শ্বাস-প্রশ্বাস, কথায়

বাতাসে ছড়িয়ে পড়তে পারে করোনা ভাইরাস । করোনাভাইরাসে আ-ক্রা-ন্তদের হাঁচি-

কাশির সময় নাক ও মুখ দিয়ে জলীয় কণা (ড্রপলেট) বাতাসে বেরিয়ে আসে। কোনো

ভাইরাস বায়ুবাহিত হলে তাকে ‘অ্যারোসল’ হিসেবে বর্ণনা করা হয়। এর অর্থ হলো,

ভাইরাসটি বাতাসের সঙ্গে ভেসে বেড়াতে পারে। এ নিয়ে বিজ্ঞানীরা ওই গবেষণায় বলেন,

বাতাসের মাধ্যমে সংক্রমণের বিষয়টি এখনো ভালোভাবে জানা যায়নি।

যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া টেকের প্রফেসর লিনসে মার নিউ ইয়র্ক টাইমসকে বলেন, জলীয়

কণার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস বাতাসে কমপক্ষে দুই ঘণ্টা ভেসে থাকতে

পারে। আর এ থেকে জোর দিয়ে বলা যায় যে বায়ু থেকেও এর সংক্রমণ হতে পারে।

জানা গেছে, উহানের রেনমিন হাসপাতাল এবং একটি অস্থায়ী হাসপাতাল থেকে নমুনা

গবেষণার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে বিজ্ঞানীরা। এছাড়া কিছু আবাসিক ভবন এবং

দোকান থেকেও এই গবেষণার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

ব্লুমবার্গ ম্যাগাজিনের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে , স্বাস্থ্য কর্মীরা যেখানে

পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট( পিপিই) খুলে রাখেন সেখানে করোনা ভাইরাস

বেশি পাওয়া গেছে। এখান থেকে বোঝা যাচ্ছে যে ওই পিপিই থেকে ভাইরাসগুলো বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও বলছে যে বাতাসে ছড়িয়ে যেতে পারে করোনা ভাইরাস। তবে এটি দ্বারা

মানুষের আ-ক্রা-ন্ত হওয়ার সম্ভবনা নিয়ে এখনো নিশ্চিত করে বলতে পারেনি কেউ।

Related posts

Leave a Comment